Porjotonlipi

হালাল ট্যুরিজম এর প্রসার ঘটাতে চায় থাইল্যান্ড

হালাল ট্যুরিজম নিয়ে ভাবছে থাইল্যান্ড। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে থাইল্যান্ডে মুসলিম পর্যটকদের সংখ্যা বেড়েছে। এই পরিস্থিতিতে, থাই সরকার দেশটিকে এই অঞ্চলে একটি “হালাল পর্যটন” কেন্দ্রে পরিণত করার নির্দেশনা জারি করেছে। ব্যাংকক পোস্টের খবরে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। ব্যাংকক পোস্ট অনুসারে, ১৪৫টি দেশের মধ্যে থাইল্যান্ডের অবস্থান ৩২তম। শীর্ষে রয়েছে ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়া।

হালাল ট্যুরিজম এ থাইল্যান্ড

থাইল্যান্ডের মুখপাত্র চাই ওয়াচারঙ্কের মতে, থাই প্রধানমন্ত্রী স্রেতা থাভিসিন সমস্ত পর্যটন সংস্থাকে দেশটিকে মুসলিম-বান্ধব গন্তব্য হিসেবে প্রচার করার নির্দেশ দিয়েছেন।

ক্রিসেন্ট রেটিং এবং মাস্টারকার্ড দ্বারা প্রকাশিত গ্লোবাল মুসলিম ট্র্যাভেল ইনডেক্সে থাইল্যান্ড নন-ওআইসি (অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক কো-অপারেশন) দেশগুলির মধ্যে পঞ্চম স্থানে রয়েছে বলে চাই-এর বিবৃতি এসেছে৷ মুসলিম যাত্রীদের দেওয়া সুযোগ-সুবিধার ভিত্তিতে র‍্যাংকিং করা হয়েছে। হালাল ট্যুরিজম এর সুবিধার মধ্যে রয়েছে হালাল খাবারের বিকল্প, ভ্রমণ সুবিধা এবং উপাসনালয়ে সহজে প্রবেশাধিকার।

তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে হালাল পর্যটন শিল্প দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। অন্তত ১৬.৮ মিলিয়ন মুসলমান এই বছর বিশ্বজুড়ে ভ্রমণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে। চাই বলেছেন- এটি মহামারীর আগের তুলনায় ১৫ শতাংশ বেশি।

চাই আরো বলেন, থাইল্যান্ড মুসলিম পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয়। কারণ এটি একটি বহুসাংস্কৃতিক পরিবেশ এবং মুসলিম-বান্ধব সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি হালাল খাবারের বিস্তৃত নির্বাচন প্রদান করে।

 

Porjotonlipi Desk

Add comment

ফেইসবুকে আমরা

Advertisement