Porjotonlipi

পৃথিবীজুড়ে ৭ টি বিস্ময়কর পরিবেশ-বান্ধব ঠিকানা

এই ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই যে ভ্রমণ আমাদের সমৃদ্ধ করে। এটি আমাদেরকে নতুন অভিজ্ঞতা, নতুন মানুষ এবং নতুন সুযোগের দিকে উন্মুক্ত করে। তবে এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই যে, আমাদের মধ্যে সবচাইতে যে আবহাওয়া সচেতন সেও আমাদের ঘোরাঘুরিতে লাগাম লাগাতে লড়াই করবে।
সুতরাং, আপনি কীভাবে একই সাথে ভ্রমণ এবং পরিবেশের যত্ন নিতে পারেন? আমাদের কাছে এরও উত্তর আছে — পরিবেশ বান্ধব স্থানে ভাড়া থাকুন!পরিবেশবান্ধব আবাসনে থাকার জন্য দিন দিন চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে, আর এতে করে অন্যান্য আবাসন ব্যবসায়ীরা তাদের স্থাপনাগুলোকে পরিবেশবান্ধব করে গড়ে তুলতে উত্সাহিত হচ্ছে। আর এই সকল আবাসন মালিকরা পরিবেশের উপর বিরূপ চাপ কমাতে কি কি পদক্ষেপ নিচ্ছে সেগুলোর কিছু ধারণাও নিতে পারেন … যা এই পরিবেশের জন্য উপহার স্বরূপ বলা যেতে পারে!

ইকোভিডা কাসা ফ্যামোসা, কোস্টা রিকা 

আপনি যদি ভেবে থাকেন যে পরিবেশ-বান্ধব হওয়ার অর্থ হচ্ছে নিজের সুযোগ সুবিধা আরাম আয়েসকে উৎসর্গ করা, তবে কোস্টা রিকার প্লেয়া বেজুকোর এই সুন্দর জায়গাটি আপনাকে ভুল প্রমাণ করে দিবে। এখানকার কর্তৃপক্ষ অতিথিদের উষ্ণ অভ্যর্থনা দেওয়ার ব্যাপারে বেশ গর্ববোধ করে থাকে এবং রেস্তোঁরা পরামর্শ থেকে শুরু করে ট্যুর পর্যন্ত আপনার প্রতিটি চাহিদা মেটানোর চেষ্টা করে। শীতাতপনিয়ন্ত্রিত কক্ষ, একটি ব্যক্তিগত পুল এবং একটি বার বি কিউ করা যাবে এমন একটি চমত্কার ছাদসহ রয়েছে নানান সুবিধা এবং আপনি নিজেকে খুবই নিরাপদ বোধ করবেন এটি জেনে যে সৌর শক্তি দ্বারা এই রিসোর্টটি চালিত হচ্ছে।খুবই যত্ন এবং মনোযোগ দিয়ে আশেপাশের পরিবেশকে সুসজ্জিত এবং সুরক্ষিত রাখা হয়েছে যাতে ভবিষ্যতের অতিথিরা বছরের পর বছর ধরে আশেপাশের বন্যজীবন আরামের সাথে উপভোগ করতে পারে। একজন অতিথি যেমন বলেছিলেন, “প্রতিদিন সকালে উঠে আমাদের কফি খেতে খেতে পাখি ও সমুদ্রের আওয়াজ শুনা এবং গাছ গাছালি গুলিতে বানরদের দেখতে দেখতে ওপরের সিঁড়ি দিয়ে হেঁটে যাওয়া খুবই দুর্দান্ত ব্যাপার ছিল।”

বালবোয়া পার্ক ইকো-স্টুডিও, সান ডিয়েগো

সান ডিয়েগোতে এই পোষা প্রাণী বান্ধব জায়গাটি পরিবেশ-বান্ধবতায় পরিপূর্ণ। ছাদে ফটোভোলটাইক সৌর প্যানেল রয়েছে, উঠোনে জল দেওয়ার জন্য একটি বৃষ্টির জল সংগ্রহের ব্যবস্থা রয়েছে, একটি আচ্ছাদিত কম্পোস্ট ব্যারেল, এলইডি “ডার্ক স্কাই” বহিরাগত আলো এবং সোলার এলইডি ওয়াকওয়ে আলো রয়েছে। এছাড়াও, ড্রাইভওয়েতে প্রাইভেট চার্জিং স্টেশনে বৈদ্যুতিক গাড়িগুলি চার্জ করা যেতে পারে।
যখন আপনি অলসভাবে বসে না থেকে আপনার আশেপাশের পরিবেশ উপভোগ করতে চান, তখন এই ইকো স্টুডিওর আশেপাশে অনেক কিছুই করার আছে; যার বেশিরভাগটিই হাঁটার দূরত্বে বা গণপরিবহণের মাধ্যমে সহজেই পৌঁছানো যায় এরকম। স্থানীয় আকর্ষণগুলি যেমন বালবোয়া পার্ক বা করোনাদো দ্বীপ দেখুন। সৈকতে স্বাচ্ছন্দ্যে দিন কাটান কিংবা কেনাকাটা করতেও যেতে পারেন।

লোটাস ভিলা, ক্রোয়েশেয়া


আপনি যদি কিছু সময়ের জন্য ‘অফ-গ্রিড’ হয়ে যেতে চান তবে ক্রোয়েশিয়ার ব্র্যাকের এই সুন্দর ভূমধ্যসাগরীয় ভিলা আপনার জন্য সর্বোত্তম জায়গা। অঞ্চলটিতে বিদ্যুত নেই তাই সুবিধাগুলি সম্পূর্ণ সৌরশক্তি থেকে চালিত হয় (কেবলমাত্র ব্যাক-আপ জেনারেটর রয়েছে, কেবলমাত্র অতি প্রয়োজনীয়তার কথা ভেবে!)। এ ছাড়া, যখন আপনার সামনে থাকবে দর্শনীয় ডুবোকা বে ও তার পরিষ্কার এবং স্বচ্ছ ফিরোজা রঙের জল নিয়ে অবলোকন করার জন্য তখন আপনার ট্যাব বা ফোনের দিকে একদৃষ্টে তাকিয়ে থাকতে চাওয়া সবচাইতে শেষ ব্যাপার হবে। টেরেসে এক গ্লাস পানীয় উপভোগ করতে পারেন এবং ঘন্টা সময় কিছু দূরে আপনার প্রিয়জনের সাথে কিছু সময় ব্যয় করুন।আপনি মার্বেলযুক্ত উন্মুক্ত ফায়ারপ্লেস, একটি রোমান্টিক চার-পোস্টার বিছানা, উঁচু সিলিং এবং আর্ট সহ অনেকগুলি অনন্য বৈশিষ্ট্য ভেতরে পেয়ে যাবেন। আর সেখানকার সৈকতটি কয়েক মিনিট দূরে তাই একটি বই নিন, একটি পিকনিক ফিক্স করুন এবং বিশ্বের এই অভূতপূর্ব জায়গার মাঝে আরামদায়ক পরিবেশের সর্বোচ্চ উপভোগ করুন।

ফিনকা ডি অ্যারিয়েটা, লাঞ্জোরোটে

এই চমকপ্রদ ইকো ইয়ার্টটি পরিবার-বান্ধব ইকো গ্রাম ফিনকা ডি অ্যারিয়েটাতে রয়েছে। সৌর উত্তপ্ত পুলটিতে ডুব দেওয়ার আগে সারাবছর কানারিয় জলবায়ুতে তপ্ত সূর্যতে কিছুক্ষণ জিরিয়ে নিন। ক্ষুধার্ত বোধ করছেন? মুরগির ঘর থেকে সরাসরি কয়েকটি সতেজ ডিম সংগ্রহ করুন এবং গরম কয়লার উপর একটি সুস্বাদু ফ্রিটাটা রান্না করুন। অবসর সময়ে লা গারিটা সমুদ্র সৈকতে দিন কাটান বা অ্যারিয়েটা উদ্যানের মনোমুগ্ধকর ফিশিং গ্রামে বেড়াতে যান। এখানে আপনি বেশ কয়েকটি রেস্তোঁরা এবং প্রাতঃরাশের বার / কফি শপ পাবেন। এটি এমন একটি পারিবারিক ভ্যাকেশন যা আপনি বারবার চাইবেন।

লা লুসারতলা, ইতালি

এই দুই বিছানাওয়ালা ঘরগুলো, অতিথিদের কল্পনাতীত বেশ কয়েকটি সুন্দর তাসকান দেশের ন্যায় আরামপ্রদ অনুভবের সুযোগ দেয়।
যদি এই বাড়িগুলোর সাজসজ্জা প্রশংসায় মত্ত হওয়ার মত না কিন্তু বাড়িগুলো থেকে সামনের অভিনব প্রাকৃতিক দৃশ্য আসলে উপভোগ করার মত। জলপাইয়ের বিশাল ঘন জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মনোরম দৃশ্য, বন, ক্ষেত, পিসার হেলানো মন্দির, ভূমধ্যসাগর এবং আরো দূরের দর্শনীয় দৃশ্য।জায়গাটির চারপাশের সুন্দর প্রকৃতির সাথে তাল মেলাতে সেখানকার সুইমিং পুলটি ঝর্ণার হালকা নোনা জল দিয়ে পূর্ণ করা হয়েছে (সুতরাং ক্লোরিনের প্রয়োজন নেই), বাড়িটি সৌর প্যানেল দ্বারা চালিত হয় এবং পানিগুলো প্রাকৃতিক ঝর্ণা থেকে আসে। পাশাপাশি আপনি পেরোগোলাসের নীচে নৈশভোজে আল ফ্রেস্কো, রাতের বেলা তারার নীচে বসে জোনাকি এবং প্রকৃতির নৈশব্দতা উপভোগ করতে পারেন। আপনার চাইলে নিজের মত করে পিজ্জা তৈরি করতে পারেন কিংবা জলপাইয়ের কাঠ ব্যবহার করে বার বি কিউ কাবাব উপভোগ করতে পারেন। আঃ কি স্বর্গসুখ!

ওয়াটারফ্রন্ট কটেজ নানারা, ক্রোয়েশিয়া

আপনার অভ্যন্তরীণ রবিনসন ক্রুসোকে মুক্ত করতে চান? ক্রোয়েশিয়ার জিজানজ দ্বীপে এই তিন-শয্যা বিশিষ্ট কুটিরটি কেবল ফেরি দিয়ে প্রবেশযোগ্য। আপনি এই দ্বীপে কোনো রাস্তা, গাড়ি, দোকান বা কোলাহলপূর্ণ বার খুঁজে পাবেন না তবে আপনি যা পাবেন তা হ’ল শান্তি, প্রশান্তি এবং চোখ ধাঁধিয়ে যাওয়া সুন্দর দৃশ্যাবলী।
সেখানকার স্বাচ্ছন্দ্যের বিষয়ে আপনি খুব চিন্তিত হওয়ার আগে বলি, একেবারেই ভয় নেই! সৌর শক্তি দ্বারা বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয় এবং বয়লার সূর্যের উত্তাপ থেকে জলকে উষ্ণ করে, তাই গিযারের গরম পানির কোনো সমস্যা হবেনা।ফেরি প্রতিদিন কমপক্ষে ১০ বার যাওয়া আসা করে, তাই আপনি আরামের সাথে মূল ভূখণ্ডটি ঘুরে দেখতে পারেন। এবং যদি আপনার রান্না করার মন না হয় তবে দ্বীপে একটি রেস্তোঁরা রয়েছে – এই অনন্য এবং অভূতপূর্ব জায়গাতে থাকার সময় এটি আপনার স্থানীয় সঙ্গী হয়ে উঠতে পারে!

ফারস গ্ল্যাম্পিং, সাফেক, ইংল্যান্ড

বিদ্যুতের সঞ্চয় এবং কার্বন নিঃসরণ হ্রাস করার অন্যতম সেরা উপায় হচ্ছে গ্ল্যাম্পিং। এই অত্যাশ্চর্য সাফেক পল্লীতে দুর্দান্ত বেল টেন্টগুলির মধ্যে বসবাস সত্যিই অসাধারণ এবং একটি স্বাচ্ছন্দ্যময় গ্রামাঞ্চলে থাকার জন্য রান্নাঘর থেকে ইকো টয়লেট অবধি আপনার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত কিছু রয়েছে!সাউথওল্ডের এই সুন্দর শহরটি মাত্র দু’মাইল দূরে যেখানে আপনি এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে প্রথমদিকে হাঁটতে পারেন এবং কিছু সুস্বাদু মাছ এবং চিপস উপভোগ করতে পারেন।
রাতে ক্যাম্পসাইটে ফিরে শীত পড়লে আপনি কুশন, কম্বল এবং লগ বার্নার দিয়ে খুবই আরামের ঘুম উপভোগ করতে পারবেন।
সকালে আশেপাশের এলাকাতে ঘুরে ফিরে দিন কাটাবার জন্য নিজেকে তৈরি করতে গরম পানিতে গোসল করার আগেই খোলা বাতাসে রান্নাটি সেরে নিন!

কন্টেন্ট রাইটারঃ হাফসা সিদ্দিকা

porjotonlipi-admin

Add comment