Porjotonlipi
নজরপুর

নয়নাভিরাম নজরপুরের চর

নজরপুরের চর সম্পর্কে খুব একটা ধারণা না থাকলেও, দেখতে কিন্তু অসাধারণ। মানুষের বেঁচে থাকার জন্যে সবুজ প্রকৃতি খুবই দরকার। হয়তো মানুষ আজ সেটা কিছুটা হলেও অনুভব করতে শিখেছে। তাইতো আজ তারা আবারও ফিরে যেতে চাইছে সেই সবুজের কাছে।

নরসিংদীর নজরপুরের চর

খুঁজে ফিরছে কোথায় গেলে একটু সবুজ প্রকৃতির দেখা পাবে, কোথায় গেলে একটু নির্মল বাতাস পাবে। সেরকমই একটি সবুজ ঠিকানার সাথে আপনাদের আজ পরিচয় করিয়ে দেবে পর্যটনলিপি। আর সেটা হলো ঢাকার একদম কাছের জেলা শহর নরসিংদীর নজরপুরের চর।

প্রকৃতি ও মানুষের মেলবন্ধন

ইট-কাঠের ঠাঁস বুনোটের ভিড়ে যান্ত্রিকতার সাথে বসবাস করতে করতে সেই যান্ত্রিকতার বেঁড়াজালে আবদ্ধ হয়ে মানুষ দিনকে দিন যন্ত্রে রূপান্তরিত হয়ে পরছে। জীবনের মানে যেন আজ শুধুই ছুটে চলা এপথ থেকে সেপথে, এ গলি থেকে ও গলিতে।

বিরামহীন এই ছুটে চলতে গিয়ে মানুষ আজ প্রকৃতির কাছ থেকে সরে গিয়েছে দুরে, বহুদুরে। নগরায়নের চাপে পিষ্ট হয়ে আমাদের চারপাশের সবুজ প্রকৃতিও আজ হারিয়ে গিয়েছে ইট-পাথরের ধূসর দেয়ালে গড়া আকাশছোঁয়া অট্টালিকার আড়ালে। তার ওপর আবার মরার ওপর খাঁড়ার ঘা এর মতো রয়েছে আমাদের চারপাশের দূষণ। এক চিলতে নীল আকাশ দেখার জন্যে আমাদের আজ যেমন উঁকি দিতে হয় বড় বড় ভবনের ফাঁক দিয়ে, ঠিক তেমনিভাবে একটুখানি নির্মল ও বিশুদ্ধ অক্সিজেনের জন্যেও আমাদের আজ আকুলিবিকুলি করতে হয়। কেননা প্রকৃতিকে আমরাই দূষিত করে দুরে ঠেলে দিয়েছি। কিন্তু এভাবে চলতে থাকলে এমনদিন হয়তো খুব বেশি দুরে নয় যেদিন প্রকৃতিও আমাদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবে।

নজরপুর, নরসিংদী

নজরপুরের চর এর স্নিগ্ধতা ও সৌন্দর্য

গৎবাঁধা জীবন থেকে একটু ছুটি নিয়ে, প্রকৃতির কাছাকাছি কিছুটা সময় কাটাতে চাইলে আপনারা ঘুরে আসতে পারেন নরসিংদীর নজরপুরের চর থেকে। নাম শুনে হয়তো আহামরি কিছু মনে হবেনা আপনার। মনে হতে পারে নদীর বুকে প্রকৃতির খেয়ালে জেগে ওঠা আর দশটা সাধারণ চরের মতোই। কিন্তু কাছ থেকে দেখলে আপনি এই চরের প্রেমে পড়ে যাবেন। দুইপাশে মেঘনা নদীর নয়নাভিরাম দৃশ্যের সাথে চরের বুকের নরম গালিচার মতো ঘন সবুজ ঘাস আপনার মনে এনে দেবে প্রশান্তির এক স্নিগ্ধ ছোঁয়া। নরম ঘাসের বিছানায় শুয়ে মেঘনার বুকে সূর্যাস্ত দেখাটা হয়ে থাকবে আপনার জীবনের এক মধুময় স্মৃতি। চরের এই অপরূপ সৌন্দর্যের টানে প্রতিদিনই দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসছে সৌন্দর্য পিপাসুর দল। বর্ষাকালে এই চরের সৌন্দর্য যেন আরও ফুলে ফেঁপে ওঠে। চরের মাঝ বরাবর চলে গেছে হাঁটাপথ। পায়ে হাঁটা এই পথ দিয়ে হাঁটতে হাঁটতে ক্লান্তি লাগলে একটু জিরিয়ে নিতে বসতে পারেন পথের পাশের গাছের ছায়ায়। চারদিকে চোখ মেললেই কেবল সবুজ আর সবুজ। এ যেন সবুজের এক ভিন্ন জগৎ।

কিভাবে যাবেন নজরপুরের চর

নরসিংদী শহরে নেমে পৌরসভার সামনে এলেই পেয়ে যাবেন নজরপুরের চরে যাবার অটো রিক্সা। অথবা নরসিংদী শহরের প্রান্তে অবস্থিত নাগরিয়াকান্দি ব্রীজের সামনে থেকেও অটোরিক্সা নিয়ে চলে যেতে পারেন নজরপুরের চরে। অটোরিক্সার ভাড়া ১০০-১৫০ টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ।

কন্টেন্ট রাইটারঃ ফাহিম সাদেক সৌরভ

-করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় সকল ভ্রমণ কেন্দ্রগুলো বন্ধ রয়েছে। এই মহামারীর সময়ে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ থেকে বিরত থাকুন, নিরাপদে থাকুন।  

Porjotonlipi

Add comment