আজ আমরা আপনাদের নিয়ে যাব বাগেরহাট জেলার সিঙ্গাইর মসজিদ দেখার জন্য। এটি বাংলাদেশের ঐতিহাসিক মসজিদগুলোর মধ্যে অন্যতম। বাগেরহাট জেলায় অবস্থিত এই মসজিদটি ষোড়শ শতাব্দীতে মুঘল শাসনামলে নির্মিত। কথিত আছে যে তৎকালীন সময়ে একটি মন্দিরকে ভেঙ্গে একে সিঙ্গাইর মসজিদে রূপান্তরিত করা হয় এবং এই মসজিদটি এখনো অই মন্দিরের ভিত্তির উপর দাঁড়িয়ে আছে।

Singair-Mosque2
ষাটগম্বুজ মসজিদের দক্ষিণ-পূর্ব কোনে মধ্যযুগীয় এই মসজিদটি অবস্থিত। এটি একগম্বুজ বিশিষ্ট একটি মসজিদ। মসজিদের (বাইরের দিকের ১১.৮৮ মিঃ ঢ১১.৮৮মিঃ) আস্তর বিহীন দেয়ালগুলো গড়ে ২.১০মিঃ পুরুত্ব। প্রত্যেক কোনে বাইরের দিকে গোলাকারে বর্ধিত একটি করে সংলগ্ন বুরম্নজ রয়েছে। পূর্ব দেয়ালে খিলান দরজার সংখ্যা ৩টি। উত্তর ও দক্ষিণ দেয়ালের প্রতিটিতে খিলান দরজার সংখ্যা ১টি। পূর্ব দেয়ালের মাঝের খিলানটির আকার অন্যগুলোর চেয়ে বড়। ভিতরে পশ্চিম দেয়ালের মাঝামাঝি অংশে দুপাশে দুটি কুলঙ্গীসহ একটি অবতল মিহরাব আছে। অনুরূপ কুলঙ্গী উত্তর ও দক্ষিণের দরজাগুলোর দুপাশেও আছে। অন্যান্য সাধারণ বৈশিষ্ট্য ষাটগম্বুজ মসজিদের অনুরূপ। কেবলমাত্র চার কোনের চারটি সংলগন গোলাকার বরম্নজ মসজিদের কার্ণিস উঠানো পর্যন্ত।

Singair-Mosque

এই ধরণের মসজিদ কিংবা স্থাপনাসমুহ আমাদের দেশের ইতিহাসকে ধারণ করে। যথাযথ কর্তৃপক্ষের উচিত এই সকল নিদর্শনসমুহের নিয়মিত পরিচর্যা করা, নতুবা এই সকল নিদর্শনসমুহ একসময় কালের গর্ভে বিলীন হয়ে যাবে।

Share.

Leave A Reply